বৃন্দাবন চন্দ্র দাশ (১৮৫০-১৯৩২)

বৃন্দাবন চন্দ্র দাশ (১৮৫০-১৯৩২)

জন্মস্থান- বিথঙ্গল,বানিয়াচং, হবিগঞ্জ।

    • বৃন্দাবন চন্দ্র দাস,পিতা মৃত বিজয় কৃষ্ণ দাস, গ্রাম বিথঙ্গল । জন্ম স্থান বিথঙ্গল বড় আখড়া সংলগ্ন পশ্চিমের বাড়ী যা উনার পিতামহের বাড়ী। পেশা মিরাশদারী, মহাজনী , মহালদারী ওন ব্যবসা (শেয়ার হোল্ডার চিত্ত রঞ্জন কটন মিলস , শেয়ার হোল্ডার অল ইন্ডিয়া সুগার মিলস লিঃ সহ অন্যান্য ব্যবসায় জড়িত ছিলেন । জন্ম ১৮৫০ ইং ভাদ্র  মাস, মৃত্যু ১৯৩৩ ইং ভাদ্র মাস, শিক্ষাগত যোগ্যতা তৎকালীন পঞ্চম শ্রেনী পাশ। তিনি ছিলেন বিচক্ষণ সৎ এবং মিতব্যয়ী এবং শিক্ষানুরাগী। তিনি খুবই সাধারন জীবন যাপন করতেন এবং অন্যান্য জমিদারদের চেয়ে একটু ব্যতিক্রম জীবনযাপন করতেন, যার মধ্যে ছিল গরীবদের প্রতি ঊনার সেবামূলক মনোভাব, অত্যাচারী জমিদারদের এবং ব্রিটিশ সরকারের বিরোধিতার প্রমান তাঁর জীবনীতে পাওয়া যায়। তিনি ব্রিটিশ সরকার প্রদত্ত উপাধি গ্রহন করলেও নিজ নামের সঙ্গে এ সকল উপাধি যুক্ত করেন নি যেমন চৌধুরি রায় সাহেব এবং ব্যাংকাস উপাধি তারা উনার নামের পূর্বে এবং পরে যুক্ত করলেও তিনি তা কখনও নিজে লিখেন নাই। তিনি একজন সাধারন কৃষকের সন্তান হিসাবে জীবনযাপন করতেন কিন্তু সবসময় জমিদারদের নিষ্পত্তি নিলামে ক্রয়  করে তালুকের পরিমাণ বৃদ্ধি করতেন। এইভাবে তিনি ৫৬টি তলুকের মালিক ছিলেন। ১৯৩১ সালে তৎকালীন শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিবর্গের উদ্যোগে বর্তমান বৃন্দাবন কলেজের উত্তর সীমানায় হবিগঞ্জ কলেজ নামে একটি কলেজ প্রতিষ্ঠা হয়। এই কলেজটির রেজিস্ট্রেশনের জন্য ১০০০০/- টাকা প্রয়োজন হয়। হবিগঞ্জ জেলায় অনেক ধনী লোকদের অবস্থান সত্তেও এগিয়ে আসেন সামান্য পঞ্চম শ্রেনী উত্তীর্ণ বৃন্দাবন চন্দ্র দাস। বৃন্দাবন চন্দ্র দাসের জন্যই কলেজটি রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্ত হয়। প্রথম অধ্যক্ষ বিপিন বিহারী দে , আসাম লোকাল বোর্ডের সদস্য সুনেন্দ্র লাল দাস চৌধুরী , এ্যাডঃ বিনোদ লাল রায় কলেজটির নামকরণ করেন বৃন্দাবন চন্দ্র কলেজ। পরবর্তীতে বৃন্দাবন চন্দ্র দাসের উদ্যোগেই নাম হয় বৃন্দাবন কলেজ। কলেজটি পরিচালনার জন্য উনি নিজস্ব ১৪/১৫ হাল জমি দান করেন। ১৯৩১ সালের সেই কলেজটি আজ হবিগঞ্জ জেলার মাঝে একটি নামকরা কলেজ। উনি এক পুত্র এবং দুই কন্যা সন্তানের জনক। বৃন্দাবন চন্দ্র দাসের অনেক গুণাবলীর মাঝে অন্যতম  উনি অত্যন্ত মাতৃভক্ত ছিলেন। হবিগঞ্জ নাগরিক কমিটি এমন একজন শিক্ষানুরাগীকে সম্মান প্রদর্শন করতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করছে । আজ এই সম্মাননা গ্রহন করবেন বৃন্দাবন চন্দ্র দাসের চতুর্থ প্রজন্মের কৃতি সন্তান প্রাকৃত জনের চেয়ারম্যান বিজন বিহারী দাস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ইশরাত জাহান, জেলা প্রশাসক

ইশরাত জাহান, জেলা প্রশাসক

এস এম মুরাদ আলী, পুলিশ সুপার

আতাউর রহমান সেলিম, পৌর মেয়র

প্রতিষ্ঠাতা

সাইফুদ্দিন জাবেদSaifuddin Jabed

CERTIFIED JOY BANGLA Y.A 2015

Facebook Groups

© Habiganj Info. All Rights Reserved by Fileky